///

উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ২৬ দিন পর প্রকাশ্যে

12 mins read

আন্দোলনের মুখে টানা ২৬ দিন পর কঠোর নিরাপত্তা জোরদারের মাধ্যমে বাসভবনের বাইরে এসেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন-২ এ উপাচার্যের কনফারেন্স রুমে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরীর সাথে বৈঠকে করতে প্রকাশ্য আসেন উপাচার্য। বৈঠক শেষে একই নিরাপত্তায় উপাচার্যের অফিস ত্যাগ করেন বাস ভবনে ফিরে যান তিনি।

এরআগে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি দলের সাথে আমাদের অনেক ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা তাদের দাবিগুলো অত্যন্ত সুন্দরভাবে আমাদের কাছে উপস্থাপন করেছে। আমরা তাদের কথাগুলো মনোযোগ দিয়ে শুনেছি। শিক্ষার্থীরা তাদের দাবিগুলো আমাদের কাছে উপস্থাপন করেছে। ইতিমধ্যে তাদের কয়েকটি দাবি পূরণও হয়েছে। আমরা তাদেরকে বলেছি আস্তে আস্তে বাকি দাবিগুলো মেনে নেয়া হবে।

উপাচার্যের পদত্যাগের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলে, শিক্ষার্থীরা কেন উপাচার্যের অপসারন চাই তা আমরা শুনেছি। আমরা তাদের কথাগুলো বিশ্ববিদ্যালয় আচায্যের কাছে পৌঁছে দিব। তিনি যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি নিয়োগ দেন এবং অপসারণ করেন সেহেতু তিনি তাদের দাবিটি নিয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন।

শিক্ষামন্ত্রীর সাথে আলোচনার পর শিক্ষার্থীদের মাঝে তাৎক্ষণিক কোন প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। তারা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করছেন। রাতে সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলন চালিয়ে যাবে নাকি স্থগিত করবে সে বিষয়ে জানাবেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের আলোচনার বিষয়বস্তুর মধ্যে রয়েছে, ভিসির পদত্যাগ ও তাকে সরিয়ে ক্লাস-পরীক্ষা চালু, শিক্ষার্থীদের মামলা প্রত্যাহার, একাউন্ট চালু করা, সজল কুন্ডু ভাইয়ের এককালীন আর্থিক সহযোগিতা প্রদান ও ৯ম গ্রেডের চাকরী নিশ্চিতকরণ, জাফর ইকবাল স্যার ও ইয়াসমিন ম্যামকে এমিরেটাস প্রফেসরের সম্মাননা প্রদান, সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা খাতে বাজেট বৃদ্ধি, পরীক্ষা পদ্ধতিতে কোডিং সিস্টেম কার্যকর, শিক্ষক নিয়োগে পিএইচডি এবং ডেমো ক্লাসের ভিত্তিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া ইত্যাদি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version