নোটিশ:
জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।
কুলাউড়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, নিঃস্ব ৬ পরিবার

কুলাউড়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, নিঃস্ব ৬ পরিবার


মৌলভীবাজারের কুলাউড়া ভূকশিমইল ইউনিয়নে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৬ পরিবার নিঃস্ব হয়ে পড়েছে । শুক্রবার (১৮ মার্চ) রাত ৪টার দিকে ইউনিয়নের সাদিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, ভূকশিমইল ইউনিয়নের সাদিপুর এলাকায় পবিত্র শবে বরাতের রাত ৪টার দিকে আকস্মিক ভাবে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়। শবে ই বরাতের রাত থাকায় বাড়ীর পুরুষরা মসজিদে থাকায় মহিলাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন। প্রথমে বদরুল মিয়া ওরফে বাদাইর টিন শেডের ঘরে আগুন লাগে। পরে আশপাশের আরো ঘরসহ ৬টি ঘর ও ঘরের মালামাল পুড়ে ছাই হয়েছে।
আগুন লাগার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মসজিদ থেকে লোকজন জড়ো হয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। ততক্ষণে পরিবারের ৬টি ঘরসহ কাপড় চোপড়, আসবাবপত্র, দুইটি পানির মেশিন ছাড়াও ৬টি ছাগল ও অসংখ্য হাঁস-মোরগ এবং ময়নুল মিয়ার নগদ ৪৮ হাজার টাকা আগুনে পুড়ে যায়। পুড়ে যাওয়া ঘরের মালিকরা হলেন বদরুল মিয়া ওরফে বাদাই, মনসুর মিয়া, ময়নুল মিয়া, মুমিন মিয়া, বাচ্চু মিয়া ও বিরই মিয়া।
আগুন লাগার খবর পেয়ে কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছার পূর্বেই ৬টি পরিবারের সবকিছু আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
ভূকশিমইল ইউনিয়নের ইউপি সদস্য সামছুল আলম সমছু জানান, পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে ঘরে জ্বালিয়ে রাখা মোমবাতির আগুন থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা যাচ্ছে।
ভূকশিমইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান মনির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিঃস্ব অসহায় ৬ পরিবারকে ব্যাক্তিগত পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।
এসময় চেয়ারম্যান ও মেম্বার অবিলম্বে সরকারি সহায়তা দিয়ে পুনর্বাসনের জন্য মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক ও কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্থক্ষেপ কামনা করবেন বলে জানান।

প্লিজ সেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY Mission It Development ltd.
x
English version