কৃষককে গুলির তদন্তে মিলল অস্ত্র তৈরির বিপুল সরঞ্জাম, বাবা-ছেলে গ্রেপ্তার

11 mins read

বগুড়ার কাহালু থেকে একনলা বন্দুক তৈরির সরঞ্জামসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁরা সম্পর্কে বাবা-ছেলে। সম্প্রতি এক কৃষকের দুই পায়ে গুলি করার ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে অস্ত্র তৈরির এসব সরঞ্জাম পায় পুলিশ।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন কাহালুর কলমা শিবা গ্রামের নিলু চন্দ্র (৪৫) ও তাঁর ছেলে সঞ্জিত চন্দ্র (২২)। তাঁদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দিয়ে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
আজ শনিবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ (এসপি) কুমার চক্রবর্ত্তী জানান, শুক্রবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে কাহালুর কলমা শিবা গ্রামে একরাম হোসেন নামে এক যুবক গুলিবিদ্ধ হন। ওই ঘটনায় একই এলাকার নিলু চন্দ্র ও তাঁর ছেলে সঞ্জিত চন্দ্রকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে নিলুর তথ্যমতে তাঁর বাড়ির শৌচাগার সংলগ্ন মাটির নিচ থেকে অস্ত্র তৈরির বিপুল পরিমাণ সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।
উদ্ধার করা সরঞ্জামগুলো হলো একনলা বন্দুক তৈরির ৫টি ব্যারেল, লোহার তৈরি রিকয়েলিং স্প্রিং ৩টি, ফায়ারিং পিন ৬টি, স্টিলের তৈরি বন্দুকের ট্রিগার ৬টি, একনলা বন্দুক তৈরির স্টিলের খাপ ৫টি, বিভিন্ন আকারের লোহার পাত ১৯টি, ব্যারেলের শেষ অংশ (লোহার তৈরি জং ধরা) ১টি, ৩টি লোহার রড, ড্রিল মেশিনে ব্যবহৃত ৪টি লোহার ফোলা, লোহার তৈরি হ্যামার ৬টি, হ্যামারের মাথায় লাগানো দণ্ড ও ৪টি স্টিলের পাত।
গত বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে কাহালু উপজেলার কলমা শিব গ্রামে গুলিবিদ্ধ হন একরাম। বর্তমানে তিনি বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
গুলিবিদ্ধ একরাম (৩০) ওই গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে।
স্থানীয়রা জানান, রাতে একরাম বাড়ির পাশে দোকানে সিগারেট কিনতে বের হন। ওই সময় তাঁকে উদ্দেশ করে গুলি ছোড়া হয়। গুলি একরামের দুই পায়ের হাঁটুতে লাগে।
এ ঘটনায় একমাত্র এজাহার নামীয় আসামি একই গ্রামের মৃত আকরাম হোসেনের ছেলে শামিম হোসেনকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে গুলির কারণ এখনো জানাতে পারেনি পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version