খিলক্ষেতে অর্ধেক মাটি চাপা লাশ, আঙুলের ছাপ নিয়ে জানা গেল পরিচয়

7 mins read

রাজধানীর খিলক্ষেত উড়াল সড়কের পাশে মাটি চাপা থেকে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে আঙুলের ছাপ নিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য ভান্ডারের সঙ্গে মিলিয়ে তাঁর পরিচয় নিশ্চিত করা হয়। শনিবার দুপুরে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ জানায়, নারীর নাম শারমিন বেগম (৩৮)। তাঁর মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
খিলক্ষেত থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহরাব হোসেন বলেন, খিলক্ষেত থেকে পূর্বাচল যাওয়ার পথে উড়াল সড়কের ঢালের পাশে শারমিনের লাশ অর্ধেক মাটি চাপা দেওয়া ছিল। ৩০০ ফুট সড়কের সংস্কার কাজে নিয়োজিতরা লাশ দেখে থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। ধারণা করা হচ্ছে শারমিনকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মাটিচাপা দিয়ে রেখে যায় দুর্বৃত্তরা। তাঁর শরীরের কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।
সোহরাব হোসেন বলেন, প্রথমে শারমিনের পরিচয় জানা যায়নি। অজ্ঞাত পরিচয় হিসেবে লাশ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য মর্গে নেওয়া হয়। আঙুলের ছাপে পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাঁর গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুরে। কারা তাকে হত্যা করেছে, উড়াল সড়কের পাশে তার লাশ কীভাবে এলো বিষয় গুলো তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version