/

জমি নামজারির সময় বাটা দাগ অন্তর্ভুক্তির নির্দেশ কেন নয়

8 mins read

নামজারির খতিয়ানের সময় জমির বাটা দাগ (সংযুক্তি/বিভক্তি) অন্তর্ভুক্তির জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আজ বুধবার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল দেন। ভূমিসচিব ও ভূমি রেকর্ড জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

জমির নামজারির খতিয়ান খোলার সময় বাটা দাগ ভুক্ত করতে নির্দেশনা চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. সালাহ উদ্দিন গত বছর ওই রিট করেন। আদালতে রিটের পক্ষে আবেদনকারী নিজেই শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

পরে আইনজীবী মো. সালাহ উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, অনেক সময় জমি নামজারি করার পর দখল নিয়ে বিবাদ দেখা যায়। একটি বড় দাগের জমিতে ওয়ারিশদের মধ্যে জমি বিভক্ত হলেও নির্দিষ্ট অংশ ওয়ারিশেরা কে কোথায় ভোগ করবে, তা নির্দিষ্ট করা হয় না। কেনা ও ওয়ারিশসূত্রে পাওয়া জমিতে একপক্ষ স্থাপনা করতে চাইলে অন্যপক্ষকে আপত্তি জানাতে দেখা যায়। এ নিয়ে মামলাও হয়। দেশে ভূমি জরিপও নিয়মিত হয় না। ৩০ বছরেও নতুন জরিপ হয়নি। ভূমির আকৃতি বা প্রকৃতি পরিবর্তিত হয়। তাই নামজারির সঙ্গে মাঠপর্যায়ে দখল অনুযায়ী বাটা দাগ ( সংযুক্ত / বিভক্তি ) হিসেবে জমি অন্তর্ভুক্ত করে দিলে ভূমি বিরোধ কমে আসবে, এসব যুক্তিতে রিটটি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version