//

জৈন্তাপুরে অতি বৃষ্টি কারনে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত, সর্তক থাকার আহবান সচেতন মহলের

13 mins read

গত দুই দিন হতে অভিরাম বৃষ্টির কারনে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হতে শুরু হয়েছে। উপজেলা সবকয়েটি নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। যে কোন সময় পাহাড়ী ঢল নেমে আসতে পারে। নিন্মাঞ্চলের বাসিন্ধাদের সর্তক থাকার পরামর্শ সচেতন মহলের।

সিলেটের জৈন্তাপুরে টানা দুই দিন হতে অতি বৃষ্টির ফলে নদ নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। জৈন্তাপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। উপজেলার ছোট-বড় সব কয়েটি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতি বৃষ্টির কারনে যে কোন সময় পাহাড়ী ঢল নেমে আসতে পারে। উপজেলার প্রধান নদ-নদীর মধ্যে সারী নদী, বড়গাং নদী, রাংপানি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যে কোন সময় নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদ সীমার মধ্যে চলে আসতে পারে।

জৈন্তাপুর উপজেলা মেঘালয়ের পাদদেশে হওয়ায় এবং টানা বৃষ্টি ফলে যে কোন সময় পাহাড়ী ঢল নামার সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে টানা বৃষ্টির ফলে জৈন্তাপুরে পাহাড় ও টিলা ধষ হওয়ার সম্ভাবনা সহ পাহাড়ী ফল বিপদজনক হারে নামার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। পরিবেশবাদী ও উপজেলার সচেতন মহল পাহাড়ী এলাকায় এবং নিন্মাঞ্চলে বসবাসরত বাসিন্ধাদের সর্তক বার্তা দিচ্ছেন। বিকাল ৫টা হতে উপজেলার সবকয়েটি নদীর পানি বিপদজনক ভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সাথে থেমে থেমে বৃষ্টি হওয়ায় এনং নদীর পানি দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাওয়ায় পাহাড়ী ঢল নামার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে বলে জানান।

জৈন্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান, নিজপাট ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইয়াহিয়া, চারিকাটা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শাহআলম চৌধুরী তোফায়েল প্রতিবেদককে জানান, গত দু দিনের টানা বৃষ্টির কারনে ১লা জুন বিকাল ৫টা হতে নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদ সীমার কাছে চলে আসবে। আমাদের ইউনিয়ন গুলোর নিন্মাঞ্চলের ও পাহাড় টিলার বাসিন্ধাদের সর্তক থাকার পরামর্শ ওয়ার্ড সদস্যদের মাধ্যমে জানানো হচ্ছে। তারা আরও বলেন, বিগত বৎসর গুলোতে বিভিন্ন সময়ে ফ্লাস বন্যা ও পাহাড়ী ঢলে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। নদ-নদীর পানি অতিমাত্রায় বৃদ্ধির জন্য আমরা সাবাইকে সর্তক হওয়ার আহবান জানান।

জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমদ জানান, অতিত অভিজ্ঞতার পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলার নিন্মাঞ্চল ও পাহাড়ী এলাকার বাসিন্ধাদের সর্তক থাকার আমি মৌখিক ভাবে ইউনিয়ন চেয়ারম্যাদের জানিয়ে দিয়েছি। ফ্লাস বন্যার বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version