নোটিশ:
জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।
শিরোনাম :
নবীগঞ্জে ইয়াবা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি সোহাগকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৯ স্ট্যাটাস দিয়ে প্রমাণ দিতে হলো, আমি বেঁচে আছি : হানিফ সংকেত ধর্মপাশায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ সহকারী শিক্ষকের বিরুদ্ধে ওসমানীনগরে শাহীন ডাকাত গ্রেফতার টাঙ্গাইলের সখিপুর আসামী গ্রেফতারও ভিকটিম উদ্ধার করল পুলিশ জৈন্তাপুরে নদী ভাঙ্গনের কবলে কয়েকটি গ্রামের বাসিন্ধা চিকনাগুলের বানবাসি মানুষের মধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যানের ত্রাণ বিতরণ হানিফ সংকেতের মৃত্যুর গুজব রাজনগরে জনশুমারি বিষয়ক অবহিতকরণ সভা শাবিপ্রবিতে স্পিকার্স ক্লাবের আয়োজনে ক্যারিয়ার বিষয়ক সেমিনার
ধর্মপাশায় ৯মে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়নি

ধর্মপাশায় ৯মে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়নি

ধর্মপাশায় ৯মে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়নি, দুইপক্ষের পৃথক ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আ.লীগের কমিটি গঠন,সংঘর্ষের আশঙ্কা

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল আজ ৯মে। কিন্ত এ উপজেলায় হাওরের পুরো জমির বোরো ধান কাটা শেষ না হওয়ায় উপজেলায় আওয়ামী লীগের সম্মেলন পেছানো হয়েছে।
নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র কয়েকজন নেতা। সম্মেলনকে সামনে রেখে ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের নেতারা পৃথক পৃথক ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আওয়ামী কমিটি গঠন করে আসছেন। এনিয়ে যেকোনে মুহূর্তে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন উপজেলার নানা শ্রেণিপেশার মানুষেরা।
উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের কয়েকজন সিনিয়র নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৪ সালের ১০নভেম্বর।
ওই বছরের ২০নভেম্বর ৬৭সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। কমিটির অনুমোদনের কিছুদিন যেতে না যেতেই উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির নেতারা দুইভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েন। এক পক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ বিলকিস ও অপর পক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ মুরাদ।
দুটি পক্ষ পৃথক ভাবে ভাবে সভা, জাতীয় ও দলীয় দিবস পালন করে আসছে। চলতি বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি হতে উপজেলা আওয়ামী লীগের নতুন আরেকটি পক্ষের সৃষ্টি হয়। ওই পক্ষটির নেতৃত্বে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল হাসান চৌধুরী।
৯ মে ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। এই সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন করে কমিটি গঠনের লক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের তিনপক্ষের নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণে ও জেলা আওয়ামী লীগের কয়েকজন সিনিয়র নেতার উপস্থিতিতে গত ২৭মার্চ উপজেলা পরিষদ গণমিলনায়তনে প্রথমবারের মত ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নিজেদের মধ্যে দ্বিধা-দ্বন্দ ভুলে গিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনের পরামর্শ দেন জেলার জ্যেষ্ঠ নেতারা। পরামর্শ আমলে না নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের এক পক্ষের নেতাকর্মীরা গত ৪ এপ্রিল হতে এবং অপরপক্ষের নেতাকর্মীরা ১৬ এপ্রিল হতে ছয়টি ইউনিয়নে পৃথক পৃথক ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনের কার্যক্রম শুরু করেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ মুরাদ বলেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী সিনিয়র নেতারা আমাদের সম্মেলনকে সামনে রেখে যে পরামর্শ দিয়েছেন তা ওই পক্ষের নেতারা মানেননি। তাঁরা আমাদের পক্ষের নেতাদের না ডেকে ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাদের বাদ দিয়ে তাঁদের পছন্দের লোকজন নিয়ে নিজেদের ইচ্ছেমতো ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটি গঠন করে যাচ্ছেন।
এছাড়া গত ইউপি নির্বাচনে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে আওয়ামী লীগ হতে বহিস্কৃতদের উপস্থিতিতে সম্মেলন করা হচ্ছে। তাই নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় আমাদের পক্ষের নেতাকর্মীদের নিয়ে ১৬ এপ্রিল হতে দলের ত্যাগী ও পরিক্ষিত নেতাকর্মীদের নিয়ে ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হচ্ছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ বিলকিস বলেন, ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনকে সামনে রেখে আমরা আওয়ামী লীগের দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সম্মেলন করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করছি। আর ইউনিয়ন কমিটি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করছে। অন্য কারও এই কমিটি গঠন করার কোনো এখতিয়ার নেই। কমিটি গঠনের লক্ষে আমরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সব নেতাকেই ডেকেছি। কিন্তু কেউ না আসলে তাকে তো আর জোর করে আনা যাবে না। বহিস্কৃত নেতাদের অংশগ্রহণে কোনো সম্মেলন করা হয়নি। এটি অপপ্রচার ছাড়া আর কিছুই নয়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল হাসান চৌধুরী বলেন, ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দিন আমাদের পক্ষ হতে এখানকার ছয়টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন সংক্রান্ত তালিকা জমা দেব।
সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যরিষ্টার এম এনামুল কবীর ইমন বলেন, ধর্মপাশা উপজেলায় হাওরের বোরো ধান কাটা শেষ হয়নি। তাই উপজেলায় আওয়ামী লীগের সম্মেলন সপ্তাহ দুয়েক পরে করা হবে।
উপজেলার সম্মেলনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন সিনিয়র নেতা উপস্থিত থাকবেন। তাই তাঁদের সঙ্গে আলোচনা করে সম্মেলনের তারিখ সংশ্লিষ্ঠদের জানিয়ে দেওয়া হবে। ধর্মপাশার ছয়টি ইউনিয়নে পৃথক পৃথক ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা দলীয় গঠনতন্ত্র পরিপন্থী। এটি কখনো সংগঠনের জন্য শুভনীয় নয়। বিষয়টি নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

প্লিজ সেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY Mission It Development ltd.
x
English version