নোটিশ:
জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।
শিক্ষকদের খাবার ফিরিয়ে দিলেন শিক্ষার্থীরা

শিক্ষকদের খাবার ফিরিয়ে দিলেন শিক্ষার্থীরা

উপাচার্য এবং অনশনরত শিক্ষার্থীদের জন্য নিয়ে আসা খাবার ফিরিয়ে দিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের জন্য নিয়ে আসা খাবার ফিরিয়ে দেন তারা। এর আগে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের দুই কাউন্সিলরের নিয়ে আসা বিরিয়ানি ফিরিয়ে দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

এসময় প্রক্টর ড. আলমগীর কবীর বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা অহিংস আন্দোলন করে আসছেন। তবে গতকাল থেকে উপাচার্যের বাসভবনের বিদ্যুৎ বন্ধ করে দেন শিক্ষার্থীরা। এতে উপাচার্যের সমস্যা হচ্ছে। তিনি কয়েকদিন ধরে অসুস্থ। এছাড়া তিনি হার্টের রোগী, তাকে নিয়মিত ঔষুদ খেতে হয়। তাই তাকে দেখার জন্য আমরা কিছু খাবার আর ঔষুদ নিয়ে এসেছি। তবে আমাদের ভেতরে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। আমি আমার শিক্ষার্থীদের অনুরোধ করবো তারা যেন এ কর্মকান্ড থেকে বেরিয়ে আসেন।

এরআগে শিক্ষার্থীরা দুই কাউন্সিলরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, ‘শাবিপ্রবি বর্তমান এবং সাবেক শিক্ষার্থী ছাড়া আমরা কারো খাবার গ্রহণ করতে পাচ্ছি না। তবে আপনাদের আগমনে আমরা খুশি হয়েছি।’ এতে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইলিয়াসুর রহমান ও ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মখলিসুর রহমান কামরান ৫ প্যাকেট খাবার নিয়ে উপাচার্যের সাথে দেখা করতে চাইলে শিক্ষার্থীরা অনুমতি দেননি তারা।

প্লিজ সেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY Mission It Development ltd.
x
English version