//

শিশু ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর মুয়াজ্জিন গ্রেফতার

9 mins read

বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার নতুন বাজারের হঠাৎপাড়া এলাকায় ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ইয়ামিন হোসেন (১৭) নামে এক কিশোর মুয়াজ্জিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এর আগে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে আদমদীঘি থানায় ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় শুক্রবার দুপুরে গ্রেফতার ইয়াসিনকে বগুড়া আদালতে এবং শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত তিন বছর ধরে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর চেচুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা ইয়ামিন উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের মালগুদাম এলাকায় অবস্থিতএকটি মাদ্রাসায় হাফেজিয়ায় পড়াশোনা করছে এবং সান্তাহার নতুন বাজারের হঠাৎপাড়া জামে মসজিদে মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব পালন করেন।

ধর্ষণের শিকার শিশুটি সান্তাহার পৌর শহরের নতুনবাজার এলাকার হঠাৎপাড়া জামে মসজিদের এক হুজুরের কাছে আরবি পড়ত। প্রতিদিনের মতো গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার সময় অন্যদের সঙ্গে সে আরবি পড়ার জন্য মসজিদে যায়। ওই হুজুর না থাকায় মুয়াজ্জিন ইয়ামিন আরবি পড়ায় এবং পড়া শেষ করে ওই শিশুকে কৌশলে আটকে রাখে। এরপর জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতেই আদমদীঘি থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করলে ইয়ামিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম রেজা বলেন, ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে এবং মামলার আসামি ইয়ামিনকে গ্রেফতার করে শুক্রবার দুপুরে বগুড়া আদালতে এবং শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x