//////

সভাপতিকে রেখে শাবিপ্রবি ছাত্র অধিকার পরিষদের সকল সদস্যের পদত্যাগ

10 mins read

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) শাখার সভাপতি জাহিদ হাসান ছাড়া বাকি ৭ সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

কেন্দ্রীয় নেতাদের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন ও লেজুড়বৃত্তিক অবস্থানের অভিযোগে এনে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ছাত্র অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লাহ আল গালিব।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালে কোটা সংস্কার আন্দোলনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যাত্রা শুরু হয়। আমাদের প্রতিশ্রুতি ছিল স্বাধীন ও স্বতন্ত্র ভাবে লেজুড়বৃত্তিহীন রাজনীতি করবো। সেই জায়গা থেকে দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে আমাদের পথচলা। গত ২১ জুন ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক একটি বিবৃতি দেয়, যেখানে একটা রাজনৈতিক সংগঠনের লেজুড়বৃত্তির কথা স্বীকার করে।

বাংলাদেশ গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ অনুযায়ী কোনো ছাত্র সংগঠন কোনো রাজনৈতিক সংগঠনের সঙ্গে একসঙ্গে চলতে পারে না। সেই জায়গা থেকে কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ব্যাখ্যা দিতে বললে তারা ব্যর্থ হয় ও তারা যা করছে সেটা অব্যাহত রাখবে বলে জানায়। আমরা শিক্ষার্থীদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম তাদের জন্য স্বাধীনভাবে কাজ করার। তাই সংগঠন আমাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য থেকে সরে যাওয়ায় আমরা এ সংগঠন করার প্রয়োজন মনে করছি না। তাই আমরা সংগঠন থেকে পদত্যাগ করেছি।

সভাপতির পদত্যাগ নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার মনে হয় উনি কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক কার্যক্রম গুলোকে আরো পর্যবেক্ষণ করতে চাচ্ছেন, তাই হয়তো পদত্যাগ করেননি। তবে আমরা অনেক পর্যবেক্ষণ করেছি, সংগঠন বহির্ভূত কাজের মাত্রা অতিরিক্ত হওয়ায় আমরা আর আগাতে চাইনি, তাই সবাই পদত্যাগ করেি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version