নোটিশ:
জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।জৈন্তাপুর প্রতিদিন একটি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা । আপনাদের আশে পাশে ঘটে যাওয়া সংবাদটি আমাদের জানান । আমরা সঠিক তথ্য যাচাই করে খবর পোস্ট করবো ।
স্বাধীনতার বিরোধিতাকারীরাই ভাস্কর্য নিয়ে প্রশ্ন তুলছে: তথ্যমন্ত্রী

স্বাধীনতার বিরোধিতাকারীরাই ভাস্কর্য নিয়ে প্রশ্ন তুলছে: তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেছেন, বুদ্ধিজীবী হত্যার নীলনকশা যারা এঁকেছিল, স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছিল, তারাই ভাস্কর্য নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। স্বাধীনতাবিরোধীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আজ সোমবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে এসব কথা বলেন হাছান মাহমুদ।

স্বাধীনতার প্রায় ৫০ বছর পরও সেদিন যারা বুদ্ধিজীবী হত্যার নীলনকশা এঁকেছিল, সেই জামায়াতে ইসলামী ও তাদের দোসর–অনুসারীরা এখনো বাংলাদেশে সক্রিয়

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সেদিন যারা স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছিল, যারা মুক্তিযোদ্ধাদের কাফের, ইসলামবিরোধী বলে ফতোয়া দিয়েছিল, তারাই আজ ভাস্কর্য নিয়ে প্রশ্ন তুলছে।

জাতির স্বাধীনতার প্রায় ৫০ বছর পরও স্বাধীনতাবিরোধীদের এ ধরনের আস্ফালন মেনে নেওয়া যায় না। তাই এদের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।’

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে তথ্যমন্ত্রী রাজধানীর রায়েরবাজার বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধা জানাতে যান। দেশে এখনো স্বাধীনতাবিরোধীদের আস্ফালন কেন, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সেখানে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি কয়েকবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিল। তারা স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তিকে সহযোগিতা করছে। দলগতভাবে স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী, বুদ্ধিজীবী হত্যার নীলনকশা প্রণয়নকারী, আলবদর বাহিনী গঠনকারী, নারী নির্যাতনের সঙ্গে যুক্ত জামায়াতে ইসলামীকে জোটসঙ্গী করে রাজনৈতিক আশ্রয়–প্রশ্রয় দেওয়ার কারণেই এখনো স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি আস্ফালন করার অপচেষ্টা করছে। ঐক্যবদ্ধভাবে এদের রুখতে হবে।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, স্বাধীনতার ঠিক পূর্বমুহূর্তে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী যখন বুঝতে পেরেছিল বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করতে যাচ্ছে, তখন জাতিকে পঙ্গু করার উদ্দেশ্যে সেদিন জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হত্যা করেছিল। তাই যত দিন বাংলাদেশ থাকবে, ইতিহাসের পাতায় এই দিন কালো দিন হিসেবেই থাকবে।

প্লিজ সেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Log In

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY Mission It Development ltd.
English version