//

ধর্ষণ মামলা দেওয়ার পরই আমার গ্রহণযোগ্যতা বেড়েছে: নুর

9 mins read

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, আমার নামে ধর্ষণ মামলা দেওয়ার পরই মানুষের মাঝে গ্রহণযোগ্যতা বেড়েছে। এমনকি আমার সংগঠনের বিস্তৃতি আরও বেড়েছে।

রবিবার (১৮ এপ্রিল) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে নুরুল হক নুর এসব কথা বলেন। এসময় তিনি জোর দিয়ে বলেন, ২০২০ সালে ধর্ষণ মামলার পর আমাকে প্রলোভন দেখিয়েছে আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়ার জন্য। তা করিনি বলেই আমার উপর দমন পীড়ন চালাচ্ছে। শীঘ্রই এ জালিম সরকারের পতন হবে। এসময় নুরুল হক নুর আওয়ামী লীগকে ভারতের দালাল বলে সমালোচনা করেন।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসে যারা আওয়ামী লীগ করে তাদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে রবিবার (১৮ এপ্রিল) শাহবাগ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

এ মামলার বিষয়ে নুর বলেন, এ মামলা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। এ ষড়যন্ত্র দীর্ঘদিন ধরে আমার বিরুদ্ধে হচ্ছে। আওয়ামী লীগে ধর্মপ্রাণ মানুষ আছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমি স্পষ্ট ভাষায় বলেছিলাম, আমি মনে করি অবশ্যই আওয়ামী লীগে অসংখ্য ধর্মপ্রাণ মানুষ আছে, ধর্মপ্রাণ মুসলমান আছে, ধর্মপ্রাণ হিন্দু ভাই-বোন, বৌদ্ধ ভাই-বোন, খ্রিষ্টান ভাই-বোন আছে। ঠিক একইভাবে অন্যান্য দলেও সকল ধর্ম ও বর্ণের মানুষ আছে। সেক্ষেত্রে ঢালাওভাবে আওয়ামী লীগের বা আওয়ামী সমর্থকদের আক্রমণ করে কোন কথা বলিনি।

এসময় তিনি তার ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন দেশবাসীর কাছে। মানুষ হিসেবে ক্ষমা চেয়ে তিনি বলেন, আমি মানুষ, ফেরেস্তা না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসে বক্তব্যে দেওয়াকে কেন্দ্র করে দেশের কেউ কষ্ট পেয়ে থাকলে তার জন্য ক্ষমা চাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version