/

সুনামগঞ্জ-২ আসনে জীন-পরী মনোনীত প্রার্থী তিনি !

12 mins read

দিরাইয়ে ঝুলছে একটি ব্যতিক্রধর্মী ফেস্টুন। সুনামগঞ্জ-২ আসনের সংসদ নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা চালাচ্ছেন রামীম চৌধুরী নামের জনৈক ব্যক্তি। ফেস্টুনে তিনি নিজেকে জীন-পরী মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে নিজেকে দাবি করছেন। ফেস্টুনের নিচে প্রচারেও লেখা হয়েছে ‘জীন-পরী’।

ফেস্টুনটি ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। নেটিজেনরা মেতেছেন নানা ট্রলে।

অনেকের মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে জীন-পরী মনোনীত প্রার্থী কে এই রামীম চৌধুরী? তিনি কেন এমন ফেস্টুন ছাপালেন:

সেইসব তথ্য জানতে গিয়ে অনুসন্ধানে জানা যায়, সুনামগঞ্জের দিরাই পৌরসভার সুজানগর গ্রামের দিরাই উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুল হেকিম চৌধুরীর ছেলে রামীম চৌধুরী। রামীম কলেজ জীবনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সামনের সারির নেতা ছিলেন। কলেজ সংসদ নির্বাচনে ছাত্রদলের প্যানেলে তিনি এজিএস পদে নির্বাচন করেন। কলেজ থেকে ঝরে পড়ার সাথে সাথে তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন।

সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি নতুন কর্ণগাঁও গ্রামের বাসিন্দা হয়ে উপজেলার করিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করে ছিলেন। পরে যাচাই বাচাই কালে তার মনোনয়ন বাতিল হয়ে যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রামীম চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ এক আত্নীয় জানায়, ‘উনি আমার সম্পর্কে মামা হন। তিনি প্রায় ২৪ বছর ধরে মানসিক রোগে ভোগছেন। উনি ১৯৯৩ সালে এসএসসি দেন। তিন বার এসএসসি ফেল করার পর তিনি পাস করে দিরাই কলেজে এইচএসসি ভর্তি হন। তখন তিনি সুস্থ স্বাভাবিক ছিলেন। এইচএসসি পাস করার পর পর ওই তিনি মানসিক ভারসাম্য হারান।’

তিনি আর বলেন, ‘মাঝে মধ্যে উনার পাগলামী বেড়ে গেলে উনি যে কাউকে মারতে আসেন। তখন তাকে সামলানো কঠিন হয়ে পরে। উনাকে কয়েকবার মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এখনও উনার পাগলামী মাঝেমধ্যে অতিরিক্ত বেড়ে গেলে আত্নীয় স্বজনরা তাকে জোর করে ধরে নিয়ে মানসিক হাসপাতালে রেখে আসেন।’

রামীম চৌধুরী বসবাসরত গ্রামের কয়েকজনের সাথে কথা বললে তারা জানান, রামীম চৌধুরী মানসিক রোগী। উনি সবসময় একা একা চলাফেলা করেন। শুনেছি তাকে আবারও মানসিক হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Latest from Blog

x
English version